মানবিক সাহায্য সংস্থা (এমএসএস)

প্রতিষ্ঠানের জন্ম,ধরন ও নামকরণের প্রেক্ষাপট

বাংলাদেশের পুরোনো স্বেচ্ছাসেবী বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থাগুলোর মধ্যে মানবিক সাহায্য সংস্থা (এমএসএস) অন্যতম। এই সেচ্ছাসেবী, দাতব্য, উন্নয়নমূলক প্রতিষ্ঠানটির সূচনাকাল ১৯৭৪ সাল। সে বছর দেশজুড়ে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিলে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুলের একদল নিবেদিত প্রাণ ছাত্র মানবিক সাহায্য নিয়ে দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ায়। বন্যা পরিস্থিতি উন্নত হলে শিক্ষার্থীদের স্বেচ্ছাসেবার সেই আন্দোলন মানবিক সাহায্য সংস্থা নামে একটি সংগঠনের রূপ নেয়। সর্বশেষ গুরুত্ব আরোপ করা হয় অনগ্রসর জনগোষ্ঠী তথা নারীর ক্ষমতায়ন ও দারিদ্র দূরীকরণে। অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে, নারীর ক্ষমতায়ন ও দারিদ্র দূরীকরণের জন্য  সংস্থা তার ইতোপূর্বে পরিচালিত ংসধষষ পৎবফরঃ ভঁহফ ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমের অভিজ্ঞতা থেকে মানবিক সাহায্য সংস্থা ১৯৮৯ সালে মহিলা ঋণদান কার্যক্রম চালু করে। উল্লেখ্য, মানবিক সাহায্য সংস্থা বাংলাদেশে নগর ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচি প্রবর্তনে অগ্রপথিক।  দরিদ্র জনগোষ্ঠীর সার্বিক উন্নয়ন কার্যকরী করে দারিদ্র বিমোচনের জন্য অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি অন্যান্য সামাজিক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে, যেমন, সুশাসন  প্রতিষ্ঠা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য. মানবাধিকার, বিশেষ করে নারী ও শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠা।

 

সংস্থার ভিশন:

দারিদ্র মুক্ত এমন একটি সমাজ গড়ে তোলা যেখানে নাগরিকদের মধ্যে সমতা বিরাজ করে, নাগরিক অধিকার গুলোর প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা হয় এবং অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নাগরিকগণ সক্রিয়ভাবে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করে।

 

সংস্থার মিশন:

পিছিয়ে পরা মানুষের প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা এবং নেতৃত্বের সামর্থ বৃদ্ধির মাধ্যমে ক্ষমতায়ন করা, অধিকার বিষয়ে সচেতন করা এবং আর্থসামাজিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত সম্পদ সরবরাহের  সুযোগ সৃষ্টি করা।

 

সংস্থার উদ্দেশ্য:

  • পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির জন্য কল্যানমুখী কর্মসূচী গ্রহণ
  • অধিকার,গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠা করা
  • দরিদ্র জনগোষ্ঠির মধ্যে বিশেষ করে নারীদের আয় বৃদ্ধির জন্য ক্ষুদ্র ঋণের সরবরাহ ও তাদের সঞ্চয় বাড়ানো
  • পরিবার পরিকল্পনা, শিশুদের টিকা প্রদান এবং ক্লিনিকের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান
  • দুর্যোগ কবলিত অসহায় মানুষের জন্য ত্রাণ প্রদান।
 

গর্ভনেন্স ও সংস্থার কাঠামো :

সাধারণ পরিষদ : এটি সংস্থার সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী পর্ষদ। সাধারণ পরিষদের মোট সদস্য সংখ্যা ১৬ জন। প্রতি বছর সাধারণ পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাধারণ পরিষদ সংস্থার বার্ষিক প্রতিবেদন, অডিট রিপোর্ট, সংস্থার কর্মপরিকল্পনা ও বাজেট অনুমোদন করে। সাধারণ পরিষদ প্রতি তিন বছর পর পর দুই বছরের জন্য ৭ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাহী পরিষদ নির্বাচিত করে।
নির্বাহী পষর্দ : ১জন সভাপতি, ১ জন সহসভাপতি, ১জন কোষাধ্যক্ষ ও ৪ জন সদস্য নিয়ে নির্বাহী পর্ষদ গঠিত। প্রতি তিন বছর পর পর এই ৭ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাহী পরিষদ, সাধারণ পরিষদ কর্তৃক ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়। নির্বাহী পরিষদ বছরে ন্যূণতম ৪টি সভা আহŸান করে থাকে। নির্বাহী পরিষদ সংস্থার নীতি নির্ধারণী সিদ্ধান্ত প্রদান ছাড়াও  বিভিন্ন কার্যক্রমের নীতিমালা, ম্যানুয়েল ও চাকুরীবিধি প্রণয়ন, সংশোধন, সংযোজন, অনুমোদন করে। বার্ষিক প্রতিবেদন, কর্মপরিকল্পনা ও বাজেট পর্যালোচনা করে চ‚ড়ান্ত অনুমোদনের জন্য সাধারণ পরিষদে উপস্থাপন করে।    


প্রধান কার্যালয়
মানবিক সাহায্য সংস্থা
MANABIK SHAHAJYA SANGSTHA
MAIN OFFICE: SEL CENTER-29 West Panthapath, (3rd Floor), Dhaka-1205,Bangladesh.
TEL : 880-2-9125038,9143100,Fax : 880-2-9113017.
E-mail: manabik@banla.net,
Website: www.mssbd.org

নওগাঁ এরিয়া অফিস
মোঃ শহীদুল ইসলাম
এরিয়া ব্যবস্থাপক
বাঙ্গাবাড়ীয়া নওগাঁ, সদর-নওগাঁ
সেল নম্বও : ০১৭১৩ ৩৬৯৮২২, ই-মেইল: msswcparea22@mssbd.ortg
অনগ্রসর জনগোষ্ঠী বিশেষ করে দরিদ্র নারী, পুরুষের ক্ষমতায়ন ও সার্বিক দারিদ্র দূরীকরণে মানবিক সাহায্য সংস্থা অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন এই দু’ধারায় কাজ করে আসছে

অর্থনৈতিক উন্নয়ন :

মানবিক সাহায্য সংস্থা লক্ষ্যভুক্ত দরিদ্র নারী, পুরুষকে সংগঠিত করে সঞ্চয়ে উদ্বুদ্ধ করে, ক্ষুদ্র ব্যবসা শুরু করতে উৎসাহিত করে, ক্ষুদ্র-মাঝারী উদ্যোগ এগিয়ে নিতে পৃষ্ঠপোষকতা করছে।
ঋণের ধরণ:
  • সাধারণ ঋণ
  • হতদরিদ্রদের ঋণ
  • কৃষি ঋণ
  • গৃহঋণ
  • দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ঋণ
  • ক্ষুদ্র-মাঝারী উদ্যোগ
  • প্রজেক্ট ডিগনিটি
 
সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন লক্ষ্যে পল্লী এলাকায় প্রান্তিক চাষীদের ঋণ সহায়তা দেয়া হয়। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার অংশ হিসেবে বিভিন্ন সময়ে দুর্যোগে আক্রান্ত ক্ষতিগ্রস্থদের প্রয়োজন অনুযায়ী আর্থিক ও ত্রাণ সামগ্রী  বিতরণ করা হয়। ভিক্ষুকদের জীবনমান উন্নয়ন কল্পে ও তাদেরকে উন্নয়নের মূলধারায় সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে প্রজেক্ট ডিগনিটির আওতায় ইতোমধ্যে সফলভাবে কাজ করে চলেছে মানবিক সাহায্য সংস্থা।

 

সামাজিক উন্নয়ন:

একটি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, জনগণের সামাজিক উন্নয়নের উপর ভিত্তি করেই স্থায়িত্বশীলতা লাভ করতে পারে।  এই দৃষ্টিতে মানবিক সাহায্য সংস্থা সামাজিক উন্নয়ন তথা অধিকার বিষয়ক সামাজিক সচেতনতা কর্মসূচি , যেমন নারী ও শিশু অধিকার, সুশাসন ইত্যাদি বাস্তবায়নের পাশাপাশি নিয়মিত  যে কর্মসূচিগুলো বাস্তবায়ন করে আসছে,
  • স্বাস্থ্যসেবা
  • উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম
  • ডে-কেয়ার সেন্টার (নগর দরিদ্র কর্মজীবী মা’দের সন্তানদের জন্য)
  • প্রশিক্ষণ কার্যক্রম
  • মেধা বিকাশ উদ্যোগের মাধ্যমে সদস্যদের মেধাবী সন্তানদের নিয়মিত বৃত্তি প্রদান
  • আইভিশন সেন্টার
 

Health Program এর অধীনে-

General Treatment: প্রতিটি শাখায় সপ্তাহে ১ দিন করে একজন গইইঝ ডাক্তার সদস্যদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেন। সংস্থার সদস্য বছরে ২০টাকা স্বাস্থ্যসেবা বাবদ প্রদান করে। সদস্য ছাড়াও সংস্থার উপকারভোগী পরিবারের সকল সদস্য এই স্বাস্থ্যসেবা পেয়ে থাকেন এবং সিজার ছাড়া সবধরনের রোগের আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হয়, যা মোট খরচের ১০%-৩০%।



নিয়মিত স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প বাস্তবায়ন :

স্বাস্থসেবাকে উপকারভোগীদের দ্বার প্রান্তে পৌঁছে দিতে নিয়মিত বাস্তবায়িত হচ্ছে স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প, যেখানে সাধারণ চিকিৎসাসেবা ও  চক্ষু চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হচ্ছে। চোখের রোগীর ক্ষেত্রে স্বল্পমূল্যে ও প্রয়োজনে বিনামূলে চশমা বিতরণ, উন্নত হাসপাতালে অতি স্বল্প খরচে ছানী অপসারণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।



Educational Support Program (মেধা বিকাশ উদ্যোগ):

মেধা বিকাশ উদ্যোগ কর্মসূচির মাধ্যমে এমএসএস তার কর্মরত এলাকায় সংস্থার উপকারভোগীর মেধাবী ছেলে-মেয়েদের বৃত্তি প্রদান করে থাকে। এ কর্মসূচির অধীনে গত  ২০০৫ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত সর্বমোট ১০৩৫ জন ছেলে-মেয়েকে= ৭৮,৭১,৮০০ /- টাকা  বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।

সংস্থা যে সকল কার্যক্রম পরিচালনা করে তা হল:

  • Women’s Credit Program
  • Child Development Program

-Integrated Child Development Project (For holistic development of 0-19 years old children, implemented in Rayerbazar, Dhaka) supported by Save the Children
-SUCHALA Project (education program supporting poor working children) supported by Anukul Foundation
  • Health Program
  • Educational Support Program

-Non-Formal Primary Education (NFPE)
-Medha Bikash Udyog
  • Self-Sustainable Social Services Program (SSSSP)

-Day Care Center (for the children of poor working mothers)
  • Governance, Rights and Democracy Promotion

-Elections program (election monitoring, civic and voter education, advocacy etc)
-Human Rights Education (awareness raising on rights)
  • Training & Capacity Building Program
  • Project Dignity
  • Advocacy & Media
  • Eye Vision Center
  • ENRICH

 

এক নজরে নওগাঁ জেলায় এমএসএস এর কার্যক্রম


  • Economic Development Program এর অধীনে
  • Microfinance Program বা ক্ষুদ্রঋণ প্রকল্প
  • Housing Project / গৃহায়ন প্রকল্প
  • Disaster Management/ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা
  • Health Program/ স্বাস্থ্যসেবা
  • Merit Nurturing/ মেধা বিকাশ উদ্যোগ
 



 

নওগাঁয় মোট শাখা, কার্যক্রম কর্মপরিধি
সময়কাল : ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত


মোট শাখা                              = ৪টি
মোট সদস্য                            = ৪৩৭৩ জন
মোট ঋণী                               = ৩৭৮২ জন
মোট ঋণ স্থিতি      = ৫৯,৫৮৯,৩৫৭ টাকা
মোট সঞ্চয় স্থিতি   = ১৭,০৯৮,০৮২ টাকা
ঝুঁকিবীমা সহায়তা : ৩৮৩ জন, টাকা ১৩,৬১,৯৯২ টাকা

গৃহায়ণ কৃষি কর্মসূচি

গৃহায়ণ কর্মসূচি : (বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থায়ণে)
মোট পরিবার : ১১ টি, মোট ঘর ঃ ১১টি
 

কৃষি কর্মসূচি :

(বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংক এর অর্থায়ণে)
মোট উপকারভোগী : ৪৫০৩ জন
মোট ঋণ বিতরণ : ১১৯, ৪৭১,০০০ টাকা

 

সামাজিক কর্মসূচি :

এমএসএস মেধা বিকাশ উদ্যোগের আওতায় উপকারভোগীর মেধাবী সন্তানদের বৃত্তি প্রদান :
মোট শিক্ষার্থী : ৫৩ জন   মোট টাকা : ২,৮২,৯০০ টাকা
 



সচেতনতামূলক কর্মসূচি :


মানবাধিকার, নারী-শিশুর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ, স্বাস্থ্য সুরক্ষা ইত্যাদি বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণ, সভার আয়োজন করা হয়।

 

Educational Support Program (মেধা বিকাশ উদ্যোগ)


মেধা বিকাশ উদ্যোগ কর্মসূচির মাধ্যমে এমএসএস তার কর্মরত এলাকায় সংস্থার উপকারভোগীর মেধাবী ছেলে-মেয়েদের বৃত্তি প্রদান করে থাকে। এ কর্মসূচির অধীনে গত ২০০৫ থেকে ২০১৬ পর্যন্ত সর্বমোট ১০৩৫ জন ছেলে-মেয়েকে= ৭৮,৭১,৮০০ /- টাকা বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।



উপনানুষ্ঠানিক শিক্ষাকার্যক্রম ডে-কেয়ার

ঢাকা শহরের দরিদ্র, সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য ৬টি উপনানুষ্ঠানিক শিক্ষাকেন্দ্র এবং সৈয়দপুর উপজেলার বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নের দরিদ্র শিশুদের জন্য ২৫টি শিক্ষাসহায়তা কেন্দ্র শিক্ষাকার্যক্রম বাস্তবায়িত করে আসছে।
নগর দরিদ্র শ্রমজীবীর সন্তানদের সামাজিক নিরাপত্তা, স্বাস্থ্য ও পুষ্ঠির নিরাপত্তা ইত্যাদির প্রয়োজনে রয়েছে ডে-কেয়ার সেন্টার।

  এক নজরে MSS মহিলা ঋণদান কর্মসূচি (ডিসেম্বর ২০১৬ পর্যন্ত)
মোট শাখা                              = ১১৭
মোট জেলা                             = ১৫টি
মোট থানা                              = ৯৮টি
মোট ইউনিয়ন                      = ৮০০ টি
মোট গ্রাম/ওয়ার্ড                  = ২২৩৫টি
মোট সদস্য                            = ১,৮২,৩৬৩ জন
মোট ঋণী                              = ১,৬৪,৭৩৭ জন
মোট ঋণ স্থিতি                      = ৩২৯,৬৮,১৪,৪৬২ টাকা।
মোট সঞ্চয় স্থিতি                   = ১৩৮,৮৬,৭২,৬০৮ টাকা।

MSS এর তহবিলের উৎস:

সংস্থার নিজস্ব তহবিল

  • পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (চকঝঋ)
  • বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংক
  • গৃহায়ণ তহবিল-বাংলাদেশ ব্যাংক
 

দাতা সংস্থা

  • দ্য এশিয়া ফাউন্ডেশন
  • সেভ দ্য চিলড্রেন
  • অনুক‚ল ফাউন্ডেশন

সংস্থা যে সকল আইনের অধীনে নিবন্ধিতঃ

ক্রমিক নং

নিবন্ধন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান / কর্তৃপক্ষের নাম

নিবন্ধন নম্বর

নিবন্ধনের তারিখ
১. রেজিষ্টার অব জয়েন্ট ষ্টক কোম্পানীজ এন্ড ফার্ম এস-৬৫৭/৩৩ এপ্রিল ১৭, ১৯৭৯
২.

এনজিও বিষয়ক ব্যুরো

নম্বরঃ ১৩০

  নভেম্বর ২৩, ১৯৮২
৩.

মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরী অথরিটি

০০১৬৫-০১০৩৩-০০২৩৩ মে ১৪, ২০০৮

নওগাঁ জেলায় MSS এ কর্মরত  ব্যক্তিদের তালিকাঃ

 
পদবী

পুরুষ

মহিলা

মোট

এরিয়া ব্যবস্থাপক

০১

০১ জন

শাখা ব্যবস্থাপক ও হিসাবরক্ষক

০৪

০৩

০৭ জন

সিডিও

১৪

০৪

১৮ জন

ডাক্তার(খন্ডকালীন)

০১

০১

০২ জন

পিয়ন

০৩

০০

০৩ জন

মোট

২৩

০৮

৩১ জন